All Public examination Results

মোশাররফ করিমকে দোষারোপ করার আপনি কে?








আমাদের সমাজে নারী নিপীড়নের জন্য অনেকে দায়ী করে অশালীন পোষাককে। কোনটা শালীন আর কোনটা অশালীন তা ঠিক করার আপনি কে ভাই? ধর্ষণের শিকার হলেই এক শ্রেণীর পার্ভাট পটেনশিয়াল রেপিস্ট পোশাকের দোষ দেয়, বলতে চায় যে অশালীন কাপড় পড়ার জন্যই নাকি ধর্ষণ হয়েছে। অথচ তখন যদি প্রশ্ন করা হয় যে একটা সাত-আট মাস বয়সের বাচ্চা কিংবা একটা তিন-চার বছর বয়সী বাচ্চা কেন ধর্ষিত হলো, তার পোশাকে কি সমস্যা ছিল, তখন এই পার্ভাটগুলো নোংরা তেলাপোকার মত পালিয়ে যায়। নারির প্রতি সহিংসতার বিরুদ্ধে কথা বলতে গিয়ে মোশাররফ করিম ঠিক এই প্রশ্নটিই করেছিলেন। একটি বেসরকারী টেলিভিশন অনুষ্ঠানে।

Image result for মোশাররফ করিমকে

তিনি আরও বলেন, ‘পোশাক! পোশাক! পোশাক! একটা মেয়ে তার পছন্দমতো পোশাক পরবে না? আচ্ছা পোশাক পড়লেই যদি প্রবলেম হয়, তাহলে সাত বছরের মেয়েটির ক্ষেত্রে কী যুক্তি দেব, যে বোরকা পরেছিলেন তাঁর ক্ষেত্রে কী যুক্তি দেব? কোনো যুক্তি আছে?’

আরও দেখুনঃ

মোশাররফ করিমের এ কথা নিয়ে সমাজের একটা শ্রেনী প্রশ্ন তুলে। তাকে নিয়ে কটুক্তি করে। এমনকি তাকে নানারকম হুমকিও প্রদর্শন করে। যার পরিপ্রেক্ষিতে মোশাররফ বলেন,

‘চ্যানেল ২৪ এর আমার উপস্থাপিত একটি অনুষ্ঠানের একটি অংশে আমার কথায় অনেকে আহত হয়েছেন। আমি অত্যন্ত দুঃখিত। আমি যা বলতে চেয়েছি তা হয়ত পরিষ্কার হয়নি। আমি পোষাকের শালীনতায় বিশ্বাসী। এবং তার প্রয়োজন আছে। এই কথাটি সেখানে প্রকাশ পায়নি। ধর্মীয় অনুভূতি তে আঘাত করা আমার অভিপ্রায় না। এ ভুল অনিচ্ছাকৃত । আমি অত্যন্ত দুঃখিত । দয়া ক রে সবাই ক্ষমা করবেন। ‘

মোশাররফ করিমকে এমন আঘাত করলে তার সহকর্মীরাও চুপচাপ বসে নেই। অনেকেই তাকে নিয়ে প্রশ্ন তোলাকে তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। নির্মাতা হিমেল আশরাফ বলেন, নিয়মিত পাঁচ ওয়াক্ত নামায পড়া মানুষটা নাকি নাস্তিক !শত কাজের চাপে, দেশে বিদেশে এক ওয়াক্ত নামায যার কাযা হয় না সে নাকি নাস্তিক! আচ্ছা, কে আস্তিক আর কে নাস্তিক এই সনদপত্রটা দিচ্ছে আসলে কে? ধর্ম যার যার নিজস্ব ব্যাপার। কে ঠিক করে দিবে কার কি করতে হবে আর বলতে হবে। এই শ্রেনীর মানুষই আজকে সমাজের জন্য সবচেয়ে ভয়াবহ।’

Loading...