All Public examination Results

মধ্যরাতে প্রবাসী স্ত্রীর বাসা থেকে ব্যাংক কর্মকর্তা আটক! পকেটে যৌন…








কুমিল্লা নগরীর চর্থা এলাকায় ইতালি প্রবাসীর স্ত্রী সালমা সুলতানার ভাড়াটিয়া বাসা থেকে অনৈতিক কর্মকাণ্ডের অভিযোগে কপিল উদ্দিন (৩৫) নামে ডাচ বাংলা ব্যাংকের এক কর্মকর্তাকে আটক করা হয়েছে। সে ফেনী জেলার ফুলগাজী এলাকার বাসিন্দা।

গত এক বছর ধরে নগরীর ঝাউতলা ডাচ বাংলা ব্যাংকের জুনিয়র অফিসার পদে হিসেবে কর্মরত আছেন। সালমা আক্তার একই ব্যাংকের ঝাউতলা শাখায় কর্মরত আছেন। এ সময় তার পকেট থেকে যৌন উত্তোজক ট্যাবলেট পাওয়া যায় বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

বুধবার রাত সাড়ে ১২ টায় চর্থা এলাকার মাদার কেয়ার হাসপাতালে পিছনে ভবনের সালমা সুলতনার বাসায় কপিল উদ্দিন প্রবেশ করলে বিষয়টি স্থানীয়দের নজরে যায়। পরবর্তীতে বিষয়টি জানা জানি হলে প্রবাসী স্ত্রী সালমা আক্তার কপিল উদ্দিনকে বাসা থেকে বের করে দরজা বন্ধ করে ফেলে।

আরও দেখুনঃ

বাড়ির মালিক লোকমানসহ স্থানীয় গন্যমান ব্যক্তিবর্গরা কপিল উদ্দিনকে আটক করে পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে প্রাথমিক ভাবে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় দুইজনকে থানায় নেওয়া সিদ্ধান্ত গ্রহন করে

তবে বুধবার রাত তিনটা পর্যন্ত পুলিশ বার বার চেষ্টা করলেও সালামা সুলতানা দরজা খুলতে রাজি হয়নি। এ অবস্থায় বাড়ির মালিক ও সালমা আক্তারের স্বামী নিজাম উদ্দিনের বড় ভাইসহ সকালে সালমা সুলতানাকে থানায় নিয়ে যাওয়ার নির্দেশ প্রদান করেন।

বাড়ির মালিক লোকমান বলেন, প্রায় সময় এই ব্যক্তিকে বাসায় প্রবেশ করতে দেখা যেত। আমি জিজ্ঞেস করলে বলতো ৫ তলাতে যায়। আজকের ঘটনার সময় আমি ঘুমিয়ে ছিলাম তাই বেশি কিছু বলতে পারছি না।

এ বিষয়ে স্বামী নিজাম উদ্দিন বলেন, দীর্ঘ দিন ধরে গোপনে কপিল উদ্দিন সাথে শারীরিক সম্পর্ক করে আসছে সালমা। একই অফিসে চাকরীর সুবাদে তার সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। এমন অভিযোগ স্থানীয়রা আমাকে কয়েকবার দিয়েছে। এতদিন প্রমাণ না থাকায় তাকে কিছু বলতে পারি নাই। যেহেতু আজ হাতে নাতে ধরা খেয়েছে। আমি চাই দুইজনের শাস্তি হোক। সালমা সুলতনা আমার মান সম্মান মাটিতে মিশিয়ে দিয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কুমিল্লা কোতয়ালি মডেল থানার উপ-পরিদর্শক রেজাউল করিম বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে প্রাথমিক ভাবে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়া আপতত কপিল উদ্দিনকে থানায় নেওয়া হচ্ছে। দরজা না খোলায় তাদের পরিবারকে বলা হয়েছে সকালে সালমা সুলতানাকে থানায় নিয়ে আসার জন্য। পরবর্তীতে আমাদের ওসি স্যারের সিদ্ধান্ত মোতাবেক তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Loading...