All Public examination Results

প্রবাসীর প্রেমের টানে নোয়াখালীতে আসা ব্রাজিলিয়ান তরুণীর ইসলাম গ্রহণ








আসলে প্রেমের কোনোও দেশ-কাল-পাত্র নেই। এই প্রেমের টানেই সমাজ-সংসারের সব প্রতিবন্ধকতাকে অতিক্রম করে প্রেমিক-প্রেমিকার মিলনের গল্প নতুন নয় ইতিহাসে। তেমনই এক নজির স্থাপন করে বাংলাদেশি কাতার প্রবাসী হাবিবের প্রেমের টানে নোয়াখালীতে চলে আসলেন ব্রাজিলিয়ান তরুণী দিয়াগো সিলভা।

পাঁচ বছর আগে ফেসবুকে পরিচয়, তারপর প্রেম। ব্রাজিল থেকে ছুটে এলেন প্রেমিকের বাড়ি নোয়াখালী জেলার সুবর্ণচর উপজেলার চরজব্বর ইউনিয়নের চরজব্বর গ্রামে। আর এ খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে উত্সুক মানুষ একনজর দেখার জন্য ভিড় জমায় ওই প্রেমিকের বাড়িতে।


হাবিবকে বিয়ে করে ইসলাম ধর্মগ্রহণ করেছেন ওই তরুণী। সেইসঙ্গে হাবিবের সঙ্গে সংসার পাতলেন দিয়াগো সিলভা। নোয়াখালী জেলার সুবর্ণচর উপজেলার চরজব্বর ইউনিয়নের চরজব্বর গ্রামের জাকের হোসেনের ছেলে।

হাবিবের স্বজনরা জানান, প্রায় পাঁচ বছর আগে ফেসবুকের মাধ্যমে হাবিবের সঙ্গে ব্রাজিলিয়ান তরুণী দিয়াগোর পরিচয় হয়। পরবর্তীতে দুইজনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

প্রেমিকা দিয়াগো ব্রাজিল যাওয়ার জন্য বিভিন্ন সময় হাবিবকে প্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। এরই মধ্যে কাতারের ভিসা পান হাবিব। পরে তিনি কাতারে চলে যান। দুইজনের সম্পর্কও চলতে থাকে।

আরও দেখুনঃ

একপর্যায়ে দুইজনই বিয়ে করার জন্য মনস্থির করেন। তারা সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশে এসে দুইজনেই বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হবেন। গত মাসে কাতার থেকে বাংলাদেশে আসেন হাবিব। এরপর গত শুক্রবার ব্রাজিল থেকে বাংলাদেশে আসেন দিয়াগো সিলভা।

রবিবার ব্রাজিলিয়ান এই তরুণী নোয়াখালী জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টে এফিডেভিটের মাধ্যমে ইসলাম ধর্মগ্রহণ করেন এবং নাম পরিবর্তন করে রাখেন ফাতেমা।

এরপর নোয়াখালী জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টে ফাতেমার সঙ্গে হাবিবের বিয়ে হয়। বিয়ে হওয়ার পর কোর্টে উপস্থিত সবাইকে মিষ্টিমুখ করানো হয়।

এ বিষয়ে হাবিব বলেন, ফাতেমা ও আমি খুবই খুশি যে আমাদের দীর্ঘদিনের সম্পর্ক সফল হয়েছে। আপনারা আমাদের জন্য দোয়া করবেন।

বিদেশি তরুণীকে পুত্রবধূ হিসেবে ঘরে পেয়ে দারুণ খুশি হাবিবের পরিবারের সবাই। এ বিষয়ে হাবিবের মামা নুরনবী বলেন, আমাদের আত্মীয়-স্বজনসহ সবাই অবাক হলেও অত্যন্ত খুশি হয়েই নববধূকে বরণ করে নিয়েছি। অনেক ভালো লাগছে। সবাই তাদের জন্য দোয়া করবেন।

Loading...