All Public examination Results

কোদাল হাতে কে ইনি, চিনতে পারছেন?

ঘাম ঝরানো তপ্ত রোদ। কোদাল হাতে, গায়ে কাদা নিয়ে দাঁড়িয়ে আছেন জ্যোতিকা জ্যোতি। পরিচালকের একটু ইশারায় মাটির বুকে শক্ত হাতে কোদালটা গেঁথে দিলেন তিনি। একের পর এক কুপিয়ে মাটিগুলো সরিয়ে দিচ্ছেন। পানি চলে যাচ্ছে ধানক্ষেতে। যে ধানের বীজটাও নিজ হাতে বুনেছেন তিনি। এমনই এক চরিত্র মায়া।

জ্যোতিকা জ্যোতি বলেন, ‘মায়া’ একজন কৃষক, একজন মা, একজন প্রেমিকা এবং একাই জীবনযুদ্ধ চালিয়ে যাওয়া এক সংগ্রামী নারী। যেহেতু নাম ভূমিকায় আছি, তাই ছবিটির জন্য অনেকদিন ধরেই প্রস্তুতি নিয়েছি।’ ভাষ্যটা জ্যোতিকা জ্যোতির।

নতুন চলচ্চিত্র ‘মায়া- দ্য লস্ট মাদার’ ছবির একটি দৃশ্যে এটি। জীবনে প্রথম এভাবে কাজ করলেন এই শিল্পী। আর পুরো ছবিতে তিনি উপস্থিত হয়েছেন মেকআপ ছাড়াই। ছবিতে তার নাম মায়া হলেও কঠিন জীবন-সংগ্রামী নারীর গল্প এটি।

জ্যোতি বললেন, ‘এই সিনেমায় মায়া ঘর-গৃহস্থালি থেকে শুরু করে কৃষিকাজ, সবই করে। বাস্তবে আমি এসব করিনি, এমন চরিত্রও আগে করিনি। তবে আমি গ্রামে বড় হয়েছি। এ চরিত্রগুলো আমার চেনা। চরিত্রটি হয়ে ওঠার জন্য কোনও ছাড় দিচ্ছি না। এতে কাদামাটি ছাড়া আমার শরীরে আর কোনও মেকআপ নেই।’

ছবির গল্পের সূত্রপাত এক বীরাঙ্গনাকে ঘিরে। তার দুজন মেয়ে। এক মেয়ে জ্যোতিকা জ্যোতি। অপর মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করেন ভারতীয় অভিনেত্রী মুমতাজ সরকার।

‘মায়া, দ্য লস্ট মাদার’ পরিচালনা করছেন ‘নেকাব্বরের মহাপ্রয়াণ’-এর সুবাদে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়া নির্মাতা মাসুদ পথিক। তিনি জানান, ২৯ মার্চ পর্যন্ত তারা কাজ করবেন নরসিংদীর রায়পুরা গ্রামে।

এ ছবিতে আরও অভিনয় করছেন বাংলাদেশের প্রাণ রায়, রানী সরকার, সৈয়দ হাসান ইমাম, লীনা ফেরদৌসী, ঝুনা চৌধুরী, নাজমা আকতার, দেবাশীষ কায়সার প্রমুখ। এছাড়া প্রায় ২০ জন কবির অভিনয় করার কথা রয়েছে।

Loading...